জম্মু-কশ্মীরে জঙ্গী হামলায় নিহত ৪০ জওয়ান

গত ১৪ই ফেব্রুয়ারী জম্মু-কশ্মীরের পুলওয়ামা সি.আর.পি.এফ. কনভয়ে বিস্ফোরক ভর্তি একটি গাড়ী নিয়ে জঙ্গীরা ঢুকে পড়ে’ ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটায়৷ ফলে,এই সংবাদ লেখা পর্যন্ত, অন্ততঃ ৪০ জন জওয়ান নিহত হয়েছেন৷ আহত প্রায়… পি.এন.এ.

বইমেলায় আনন্দমার্গের পুস্তক সম্পর্কে ক্রমবর্ধমান আগ্রহ

এবারে সল্টলেক সেন্ট্রাল পার্কে ৩১শে জানুয়ারী থেকে ১১ই ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত  আয়োজিত  বইমেলায়  আনন্দমার্গ পাবলিকেশনে বেশ ভিড় হয়েছিল৷  বলা বাহুল্য, এখানে মার্গগুরু শ্রীশ্রীআনন্দমূর্ত্তি রচিত ‘আনন্দমার্গ… নিজস্ব সংবাদদাতা

ডিমডিহা জলবন্ধ (Dam)

আনন্দ নগরে ডিমডিহা ও ঘাগরা গ্রামদ্বয়ের মধ্যবর্ত্তী স্থানে গুয়াই নামে পাহাড়ী নদী আছে৷ গত ৮ই ডিসেম্বর সকাল সাড়ে দশটায় প্রভাত সঙীত, বাবানাম কীর্ত্তন ও মিলিত সাধনার পর এই জলবন্ধের অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন… নিজস্ব সংবাদদাতা

নববর্ষের শুভেচ্ছা

নোতুন পৃথিবীর সমস্ত কর্মী, শুভানুধ্যায়ী ও পাঠক-পাঠিকাদের আন্তর্জাতিক নববর্ষ ২০১৯-এর আগাম প্রীতি ও শুভেচ্ছা জানাই৷ নর্

নিজস্ব সংবাদদাতা

‘রাওয়া’র উদ্যোগে নৈহাটী ঐকতান মঞ্চে শ্রীশ্রীআনন্দমূর্ত্তিজী অবদানের ওপর আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

নৈহাটী ঃ ২১ নভেম্বর, ২০১৮ বুধবার সন্ধ্যায় নৈহাটীর ‘ঐকতান’  মঞ্চে বিশ্ববন্দিত মহান দার্শনিক ও কালজয়ী সঙ্গীতগুরু শ্রীপ্

নিজস্ব সংবাদদাতা

শ্রীশ্রীআনন্দমূর্ত্তিজী পার্থিব দেহের মহাপ্রয়াণ দিবসে কলকাতায় আনন্দমার্গীদের মহাসমাবেশ

২১শে অক্টোবর মহাসম্ভূতি শ্রীশ্রীআনন্দ–মূর্ত্তিজ্ পার্থিব দেহের মহাপ্রয়াণ দিবস৷ ১৯৯০ সালের ২১শে অক্টোবর বিকেল সাড়ে ৩টার সময় কলকাতাস্থিত মার্গগুরুভবন ‘মধুকোরকে’ তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন৷ পত্রিকা প্রতিনিধি

নারী–প্রগতি

অবধূতিকা আনন্দরসধারা আচার্যা

আজকাল প্রায়ই নারী প্রগতি বলে একটা কথা অনেকের মুখে মুখে চলে আসছে৷ সেদিন রেডিও এফ. এম. গোল্ড এ প্রচারিত একটি অনুষ্ঠানে এই ‘‘নারী প্রগতি’’ কথাটা শুনে আমার মনে এ বিষয়ে কিছু লেখার ইচ্ছা প্রকট হয়৷

পাকিস্থান, ভারত ও বাংলাদেশ বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে উন্নয়নের পথে চলার মানসিকতাকে অগ্রাধিকার দিক

প্রভাত খাঁ  

পাকিস্তান এমন একটি ভূখণ্ড যার তিনদিকই পাহাড় ও ভূমিবেষ্টিত  কিন্তু ভারত বিশাল দেশ তার পশ্চিমদিকে বিরাট অংশ ও পূর্বদিকের তিনভাগে প্রায় দুভাগ সমুদ্রবেষ্টিত তাই ভারতকে স্থলপথ ও জলপথে আক্রমন থেকে নিজেকে রক্ষায় বেশি সচেতন হতে হয়৷ গত ২০১১ তে প্রতিবেশী রাষ্ট্র-এর মদতপুষ্ট লস্কর তৈবার জঙ্গীরা  মুম্বাই আক্রমণ করে জলপথে৷ তার ভয়ঙ্কর পরিণতি শুধু ভারত নয় সারা পৃথিবী দেখেছে আর একটা অপ্রিয় সত্য কথা হল যে পাকিস্তানের জন্মই হয়েছে ভারত বিদ্বেষকে হাতিয়ার কবে৷ তাই সাম্প্রদায়িকেতার ভিত্তিতে ভারতবর্ষ ভাগাটাই হল সাম্রাজ্যবাদী ও ঔপনিবেশিক গোষ্ঠীর একটা কূটচাল  যার মধ্যে দিয়ে পাকিস্তানকে সামনে রেখে যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা চ

বসন্তোৎসব

আচার্য মন্ত্রসিদ্ধানন্দ অবধূত

বসন্তোৎসব সারা ভারতের উৎসব–উত্তর ভারতে ‘হোলি’, বিহার অঞ্চলে ‘ফাগুয়া’ ও বাংলায় ‘দোলযাত্রা’৷ আদিতে এই উৎসব ছিল মূলতঃ আর্যদের৷ প্রাচীন আর্যদের বাসভূমি ছিল মধ্য এশিয়ায়৷ এই অঞ্চলটা ছিল ভীষণ ঠাণ্ডা৷ সারা শীতকাল কেবল বরফ পড়তো, এটা ছিল আর্যদের দুঃসহ কষ্টের কাল৷ নিদারুণ ঠাণ্ডায় মানুষ জবু–থবু হয়ে মরার মত পড়ে থাকতো, কোন কাজকর্ম করতে পারতো না৷ এই শীতকালটা যখন বিদায় নিত, আর্যরা তখন আনন্দে উৎসবে মেতে উঠতো৷ ‘উৎ’ মানে আনন্দে লাফিয়ে ওঠা আর ‘সব’ মানে ‘জন্মগ্রহণ করা’৷ আক্ষরিক অর্থেই বসন্তের আগমনে আর্যরা প্রাণচঞ্চল হয়ে উঠতো, হৈ–হুল্লোড় ও কর্মচাঞ্চল্যে মেতে উঠতো৷

স্বচ্ছতার কাঁচটা ক্রমশঃ ঝাপসা হয়ে গেছে

জ্যোতিবিকাশ সিন্হা

ভারতবর্ষের নির্বাচন কমিশন কর্ত্তৃক ১০ই মার্চ রবিবার ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের নির্ঘন্ট ঘোষণা হয়ে গেছে৷ টিভি, রেডিও, সংবাদপত্রে এখন শুধু নির্বাচনী সংবাদের রমরমা৷ ৫বছর আগে ২০১৪ সনের নির্বাচনের প্রাক্কালে  সুন্দর ভারত গড়ার আশ্বাস ও প্রতিশ্রুতি দিয়ে, আচ্ছে দিনের স্বপ্ণ দেখিয়ে নরেন্দ্র মোদিজির নেতৃত্বে এনডি.এ সরকার ভারতবর্ষের প্রশাসনে আসে৷ দেশের তরুণ ও যুব সমাজের জন্যে বছরে ২ কোটি চাকরী,  বিদেশে গচ্ছিত  এদেশ থেকে পাচার হওয়া বিপুল পরিমান কালো টাকা উদ্ধার করে এনে প্রত্যেক দেশ বাসীর ব্যাঙ্ক একাউন্টে ১৫ লক্ষ টাকা জমা দেওয়া, দেশের শিল্প ও কৃষির অভূতপূর্ব উন্নয়ন ঘটিয়ে ‘‘সবকা সাথ সবকা বিকাশ’’ এর মাধ

মানুষ কবে মানুষ হবে

‘‘মানুষ মানুষ হারায়ে হুঁশ কোথায় চলেছ তুমি,

আকাশ সাগর বিষিয়ে দিয়ে নরক করে’ মর্তভূমি?’’

সাবাস ভারতীয় সেনা, এই জবাবটা দেয়ারই  ছিল ধর্মের নাম নিয়ে পৈশাচিকভাবে  নরহত্যা  কিছুতেই  মেনে নেওয়া যায় না৷ সীমান্ত পারের জল্লাদ গুলোকে যোগ্য জবাব দিয়েছে ভারতীয় সেনা বাহিনী, প্রয়োজনে আরও কঠিন কঠোর জবাব দিতে হবে৷ সেনাবাহিনীর এই কাজে প্রতিটি ভারতবাসীই সেনা বাহিনীর পাশেই থাকবে৷ একদল ধর্র্মন্ধ মানুষ ধর্মের মুখোশে মুখ ঢেকে দশকের পর দশক  ধরে পৈশাচিক  হত্যালীলা চালিয়ে যাবে, একে আর কোনও মতেই প্রশ্রয়  দেওয়া উচিত নয়৷

দধীচি দিবসের তাৎপর্য

মন্ত্র আনন্দ

শাসকের রক্তচক্ষুর কাছে মাথা নত করে নয়, নেতা মন্ত্রীদের তোয়াজ তোষামোদ করে নয় জামালপুরের ছোট্ট একটা রেল কোয়ার্টার্স থেকে আনন্দমার্গ বিশ্ব সংঘটন হয়ে ওঠার পিছনে আছে বহু কর্মীর ত্যাগ তিতিক্ষা আত্মত্যাগের ইতিহাস৷ দুর্জয় সাহসে ভর করে সমস্ত বাধা-বিপত্তি দু’পায়ে দলে এগিয়ে চলার ইতিহাস৷ ১৯৬৭ সাল, বাঙলার ইতিহাসে এক সন্ধিক্ষণ৷ কংগ্রেস দলের ভাঙনকে সহায় করে বাঙলার রাজনীতিতে জড়বাদী কমিউনিষ্টদের উত্থান৷ খণ্ডিত কংগ্রেসের এক অংশের সঙ্গে জোট বেঁধে প্রতিষ্ঠিত হ’ল যুক্তফ্রণ্ট সরকার৷ বিরোধী অবস্থানে থেকে যে কমিউনিষ্টরা এত দিন উন্নয়নের বুলি কপচে গেছে, যুক্তফ্রণ্ট সরকারে তারা কোনও উন্নয়নমুখী দপ্তর চায়নি, স্বরাষ্ট্র

গণতন্ত্রকে প্রগতিশীল সমাজতন্ত্রের লক্ষ্যে এগিয়ে নিয়ে যেতে যেতে হবে না হলে গণতন্ত্র ব্যর্থ

প্রভাত খাঁ

১৯৫০ সালের ২৬শে জাানুয়ারী থেকে সংবিধান মোতাবেক দেশের কেন্দ্র ও রাজ্যে গণতন্ত্রের ভিত্তিতে শাসন চলছে৷ যদি সমীক্ষা করা যায় তাহলে দেখা যাবে এই সাধারণতন্ত্রের অর্থ কী সেটা মনে হয় খুব কমই লোক জানেন ও বোঝেন৷ তবে ১৫ই আগষ্টের দিনটিকে অনেকেই স্মরণে রেখেছেন৷

শিব কে ছিলেন?

আচার্য সত্যশিবানন্দ অবধূ্ত

সারা দেশজুড়ে ‘শিবচতুর্দশী’ উৎসব পালিত হ’ল৷ আর এই উপলক্ষ্যে সর্বত্রই শিবপূজা, শিবের নামে ব্রত, মোটকথা শিবকে কেন্দ্র করে সারা দেশের প্রত্যন্ত গ্রামের মানুষ, সবশ্রেণীর মানুষই, ‘শিব’ বা সদাশিবে’র প্রতি তাদের অন্তরের ভক্তি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করল৷

বাঙলার সমস্যা

আচার্য ত্র্যম্বকেশ্বরানন্দ অবধূত৷

(শিরোনামে লিখিত বিষয়ের ওপর প্রাউট প্রবক্তা শ্রীপ্রভাতরঞ্জন সরকার তাঁর বিভিন্ন পুস্তকে যা বলেছেন, সেগুলিকে সংকলিত করে’ তুলে ধরেছেন বিশিষ্ট প্রাউটিষ্ট আচার্য ত্র্যম্বকেশ্বরানন্দ অবধূত৷)

এন, আর,সির নামে বাঙালীদের হেনস্তা করার একটি নজির

হরিগোপাল দেবনাথ

গত ২০১৭ সালের জুন মাসে যখন অসমরাজ্যে নাগরিক পঞ্জীর (এন.আর.সি) প্রথম খসড়া তালিকা বের করা হয়েছিল, তাতে অসমে মোট প্রায় ১ কোটি ৩৯ লাখ বাঙালীকে ‘ডি-বোটার’ (ডাউটফুল বোটার) করে রাখা হয়৷ উক্ত ‘ডি-বোটার থেকে তুলে নিয়ে ডিটেনশন ক্যাম্পে রাখা হয়৷ শুধু রাখা হয় বললেও ভুল বলা হবে, কেন না , এমনও জানা গেছে যে স্বামী এক ক্যাম্পে তো স্ত্রী অন্য আরেক ক্যাম্পে, কোথাও বা ছেলে-মেয়েরা এক ক্যাম্পে তো মা -বাবা অন্য কোথাও৷ এখানে ‘ডি-বোটার’ (‘‘রাষ্ট্রহীন নাগরিক’’ বলাই ভাল) বলে ঘোষিত এক মহিলার করুণ কাহিনী বর্ণনা করছি৷ মহিলার নাম শ্রীমতী কণিকা দত্ত (পরিবর্তিত)৷ কণিকার জন্মস্থান ভারতেরই অঙ্গরাজ্য ত্রিপুরা৷ ওর পিতা-মাতা ব